বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী

(তপন দাস)  নীলফামারী প্রতিনিধি

নীলফামারীর ডোমার উপজেলার বোড়াগাড়ি নয়ানী বাকডোকরা গ্রামে বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে তিন দিন ধরে অবস্থান করছেন নীলফামারী সরকারী কলেজে অনার্স পড়া এক শিক্ষার্থী। আঁখি অধিকারী নামে ওই মেয়ের বাড়ি জেলা সদরের পলাশবাড়ি ইউনিয়নের খলিশাপচাঁ মাস্টারপাড়া এলাকায়।
সে মহেন অধিকারীর মেয়ে। নীলফামারী সরকারী কলেজে অনার্স চতুর্থ বর্ষের ছাত্রী সে। তবে প্রেমিক লিপন রায় গা ঢাকা দিয়েছেন তার বাড়িতে অনশন শুরু করার পর থেকে। লিপন ওই এলাকার ভুপেষ চন্দ্র রায়ের ছেলে।
আঁখি অধিকারী জানান, ছয় বছর আগে লিপনের সাথে পরিচয় হয় আমার। এক পর্যায়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। দু’বছর আগে জগন্নাথ বিশ^বিদ্যালয়ের পাশের একটি মন্দিরে ধর্মীয় রীতি অনুসারে আমরা বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হই। নিজে কিছু না করা পর্যন্ত বিয়ের কথা প্রকাশ না করার অনুরোধে আমি তা প্রকাশ করিনি।
আঁখির অভিযোগ গেল এক সপ্তাহ ধরে সে আমার খোঁজ নিচ্ছে না, তাকে পাওয়াও যাচ্ছে না। এ কারণে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তার বাড়িতে আসি এবং পরিবারকে বিয়ের কথা জানাই।
লিপনের বাবা ভুপেষ চন্দ্র রায় বলেন, মেয়েটি তিন দিন ধরে আমার বাড়িতে আছে। শুনেছি তাকে নাকি আমার ছেলে বিয়ে করেছে। বিষয়টি সুরাহা করার জন্য মেয়েটির বাড়িতে আমার কয়েকজন লোক পাঠিয়েছে।
বোড়াগাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম জানান, বিয়ের দাবীতে অবস্থান করার বিষয়টি শুনেছি। দুই পরিবার মিলে সিদ্ধান্ত নিক তারা বরং সেটি ভালো। সমাধানে উদ্যোগ নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *