দুটি স্কুলের নতুন ভবন উদ্বোধন করলেন এমপি বাদশা

আবুল হাশেম
রাজশাহী ব‍্যুরোচীফঃ

রাজশাহী মহানগরীতে দুটি স্কুলের নবনির্মিত অ্যাকাডেমিক ভবনের উদ্বোধন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে আলাদা অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও রাজশাহী-২ আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা এ ভবনগুলোর উদ্বোধন করেন।

এর মধ্যে শহরের অগ্রণী বিদ্যালয় ও মহাবিদ্যালয়ের ছয় তলা ভবন এবং অপরদিকে শাহমখদুম হাই স্কুলেরও ছয় তলা বিশিষ্ট নতুন অ্যাকাডেমিক ভবনের উদ্বোধন করা হয়। মোট ৮ কোটি ৮০ লাখ টাকা ব্যয়ে ভবন দুটির নির্মাণ কাজ বাস্তায়ন করেছে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর।

অগ্রণী বিদ্যালয় ও মহাবিদ্যালয়ের নতুন ভবন উদ্বোধনের আগে স্কুল প্রাঙ্গনে একটি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। জাতীয় সংগীত ও শপথ বাক্য পাঠ এবং শোকাবহ আগস্ট মাস উপলক্ষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুসহ ১৫ আগস্টের সকল শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে অনুষ্ঠানটির সূচনা করা হয়।

এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, যে মাসটিতে আমরা স্কুলটির ভবন উদ্বোধন করছি, এটি অত্যন্ত বেদনা ও কষ্টের মাস। এই আগস্ট মাসেই স্বপরিবারে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুবিজুর রহমানকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়। স্বাধীন বাংলাদেশকে যারা ফের পাকিস্তানী ভাবধারায় ফেরানোর ষড়যন্ত্র করছিল; তারাই মূলত সেদিন বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছিল। বঙ্গবন্ধুর কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আমরা দেশে ফিরিয়ে এনে তারই নেতৃত্বে দেশকে আবারও মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুর চেতনায় এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য কাজ করে যাচ্ছি।

দেশের বর্ষীয়ান এই রাজনীতিক আরো বলেন, আজকে বাংলাদেশ যে এগিয়ে যাচ্ছে; তার অনেক নজির আমরা দেখতে পাই। সেই পাকিন্তানের জনগণই তাদের প্রধানমন্ত্রীর কাছে দাবি করে, আমরা সুইজারল্যান্ড হতে চাই না; আমরা বাংলাদেশের মতো রাষ্ট্র চাই। এটি আমাদের জন্য কতো বড় গৌরবের কথা! বাংলাদেশের অগ্রগতি আজকে পাকিন্তান স্বীকার করে, কিন্তু আমাদের দেশের কিছু ষড়যন্ত্রকারীরা স্বীকার করতে চায় না। পদ্মাসেতুর মতো বড় কর্মযজ্ঞ প্রমাণ করে, আমাদের দেশে অনেক এগিয়ে গেছে। এসব কিছুই বঙ্গবন্ধু ও তার কন্যা শেখ হাসিনার অবদান। এটি অস্বীকারের কোন সুযোগ নেই।

রাজশাহীতে শিক্ষাখাতে তার উন্নয়নের কথা তুলে ধরে সদর আসনের এই এমপি বলেন, আমি সবসময় আমাদের নতুন প্রজন্মের কথা চিন্তা করেছি। এমন কিছু করে যাওয়ার চেষ্টা করেছি যেটি ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাজে আসে। শিক্ষা খাতে রাজশাহীর চিত্রই পাল্টে গেছে। সরকার সব সময় আমাকে এসব বিষয়ে সহযোগিতা করেছে। আমাদের এলাকার ছেলে মেয়েরা সুন্দর আধুনিক পরিবেশে যাতে শিক্ষার আলো গ্রহণ করতে পারে এটিই আমার স্বপ্ন। আমি সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য আপনাদের ভালোবাসায় সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

অগ্রণী বিদ্যালয় ও মহাবিদ্যালয়ের গভর্নিং বডির সভাপতি আলহাজ্ব মোশারফ হোসেন বাচ্চুর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখলেন স্কুলটির অধ্যক্ষ সাইফুল হক। এ সময় গভর্নিং বডির অন্যান্য সদস্যসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা বক্তব্য রাখেন।

অপরদিকে নগরীর শাহমখদুম হাইস্কুল প্রাঙ্গনেও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। নতুন ভবন উদ্বোধনের পর সেখানেও প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন এমপি ফজলে হোসেন বাদশা। এর আগে ভবনটিতে বঙ্গবন্ধু গ্রন্থাগারের উদ্বোধন করেন তিনি। শিক্ষার্থীদের জন্য আলাদা করে গ্রন্থাগার করায় তিনি স্কুল কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানিয়ে সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।

শাহমখদুম হাই স্কুলের গভর্নিং বডির সভাপতি রবিউল করিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, স্কুলটির অধ্যক্ষ দীপক কুমার লাহিড়ী। এ সময় স্থানীয় এলাকার জনপ্রতিনিধিসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.