ময়মনসিংহে জেলা পুলিশ সুপারের বদলী জনিত বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত:

খায়রুল বাশার ,ময়মনসিংহ প্রতিনিধি:

হে বিদায়ী পুলিশ সুপার বেঁচে থাকুন আপনার সৎকর্মের মধ্যে এটাই ময়মনসিংহবাসীর সকলের চাওয়া। যেতে দিতে নাহি মনে চায়, তবু ও যেতে দিতে হয় এটা প্রকৃতির নিয়ম। মনীষীরা বলেগেছেন মানুষ স্থিতিশীল নয় মৃত্যুর আগ-মুহুর্ত পর্যন্ত চলমান, সেটা জীবনের সকল কর্মক্ষেত্রে এটাই বাস্তবতা।
ময়মনসিংহ কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশের উদ্দ্যোগে আয়োজিত জেলা পুলিশ সুপার আহমার উজ্জামান পিপিএম ও মিসেস কাণিজ আহমার বদলী জনিত বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
গত শুক্রবার (১৯ আগষ্ট) রাত ৮ ঘটিকার সময় কোতোয়ালী মডেল থানা কম্পাউন্ডে অনুষ্ঠিত এ বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে থানা পুলিশের (ভারপ্রাপ্ত) কর্মকর্তা (ওসি) শাহ্ কামাল আকন্দ পিপিএম বার এর সভাপতিত্বে ও অপারেশন ইন্সপেক্টর ওয়াজেদ আলী সঞ্চালনায় অনুষ্ঠেয় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, সদ্য বিদায়ী ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার মোহা:আহমার উজ্জামান পিপিএম।
বদলিজনিত বিদায়ে সহকর্মীদের ভালোবাসায় সিক্ত হন বিদায়ী অতিথি। জেলা পুলিশের সকল পর্যায়ের পুলিশ সদস্যদের বক্তব্যে কর্মময় জীবনে বিদায়ী অতিথি একজন সৎ, মেধাবী, প্রতিশ্রুতিশীল আগুয়ান, চৌকস, পরিশ্রমী, দক্ষ, গুণী ও মানবিক গুণাবলী সম্পন্ন পেশাদার পুলিশ সুপার হিসেবে আলোচিত হন। সহকর্মীরা বিদায়ী অতিথির পেশাগত ও ব্যক্তিগত জীবনের উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করেন।
বিদায়ী পুলিশ সুপার মোহা:আহমার উজ্জামান তার বক্তব্যে বলেন, ‘আমার যাবতীয় যত প্রশংসা সবকিছুই সহযোদ্ধা-সহকর্মী পুলিশ সদস্যদের জন্য। সকলেই আমাকে এমনভাবে সহায়তা করেছেন তারা এমনভাবে দায়িত্বগুলো পালন করেছেন যার ফলশ্রুতিতেই আমি আজ সম্মানিত বোধ করছি। করোনাকালীন কার্যক্রমসহ জনমুখী বিভিন্ন কাজের জন্য পুলিশ সদস্যদের প্রশংসা করেন এবং প্রত্যেককে পেশাদারিত্ব, নিষ্ঠা ও সততার সাথে অর্পিত দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে জনবান্ধব পুলিশিং নিশ্চিতকরনের নির্দেশনা প্রদান করেন।
কোতোয়ালী পুলিশের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। জেলা পুলিশ সুপার হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণ করে প্রায় ২ বছর ৮ মাস দায়িত্ব পালনকালে কর্মগুনে আলো ছড়িয়ে তিনি জয় করেছেন জেলাবাসীর মন। ময়মনসিংহ জেলার পুলিশ সুপার হিসেবে দায়িত্বপালনকালে জেলাবাসীর জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিতে তিনি কাজ করেছেন একাগ্রচিত্তে। পুলিশি সেবা সাধারণ মানুষের দৌড়গোড়ায় পৌঁছে দিতে একজন পুলিশ সুপার হিসেবে নিয়েছেন নানামুখী উদ্যোগ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.