নলডাঙ্গা উপজেলা চেয়ারম্যানের পিটুনিতে ছাত্রলীগ নেতা নিহত।

রেজাউল করিম নলডাঙ্গা (নাটোর) সংবাদদাতাঃ

নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ ও তার সমর্থকদের পিটুনিতে ছাত্রলীগ নেতা জামিউল আলিম জীবন গুরুতর অসুস্থ হয়।জীবন এর অবস্থার অবনতি হলে তাকে চিকিৎসার জন্য প্রথমে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় পরে তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল হাসপাতাল নিয়ে আইসিইউতে চিকিৎসা দেওয়া হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ (২৩ সেপ্টেম্বর)শুক্রবার দুপুরে মারা যায়। রাজশাহী মেডিক্যাল হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডাক্তার শামীম ইয়াজদানী ও নিহতের চাচা এস এম ফিরোজ বিষয়টি নিশ্চিত করেন। গত সোমবার ফেসবুক লাইভ করায় আওয়ামীলীগ নেতার ছোট ভাই ও ভাতিজাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করার অভিযোগ পাওয়া যায় । সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার রামশাকাজীপুর আমতলী বাজারে এই ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে রয়েছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এসএম ফিরোজের ছোট ভাই ফরহাদ হোসেন(৬০) ও তার ছেলে জামিউল আলিম জীবন (২৫)। আহতদের মধ্যে জামিউল ইসলাম জীবন আশঙ্কাজনক অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল হাসপাতালে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ছিল।

জানা গেছে, ফেসবুক লাইভে জামিউল ইসলাম জীবন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদের বিরুদ্ধে নানা মানহানিকর তথ্য ছড়ান। পরে উপজেলা চেয়ারম্যান তার লোকজন নিয়ে রামশাকাজীপুর আমতলী এলাকায় যান। সেখানে জামিউল আলিমের সাথে ফেসবুক লাইভ করা নিয়ে বাকবিতন্ডায় জড়ান। নিহত স্বজনদের অভিযোগ, এসময় আসাদুজ্জামান আসাদের লোকজন তাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। জীবনকে বাচাঁতে তার বাবা ফরহাদ এগিয়ে এলে তাকেও পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করা হয়।

উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এসএম ফিরোজ জানান, জীবন কোন অপরাধ করে থাকলে উপজেলা চেয়ারম্যান আমাকে জানাতে পারতেন। কিন্তু সরকারি লোক হয়েও তিনি যে গর্হিত ও অনাকাঙ্খিত কাজটি করেছেন তা করা উচিত হয়নি। এবিষয়ে জেলার নের্তৃবৃন্দদের অবহিত করা হয়েছে। থানায় অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। আমি এই ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত ও ফাঁসির দাবি জানাচ্ছি

নলডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ শফিকুল ইসলাম জানান এই ঘটনায় জামিউলের মা জাহানারা বেগম বাদী হয়ে একটি অভিযোগ করেছেন। এই অভিযোগে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
রেজাউল করিম নলডাঙ্গা নাটোর
তাং-২৩/০৯/২২
মোবাঃ ০১৭১৪৯৪৩৫৭০

Leave a Reply

Your email address will not be published.