ছাত্রী অপহরণকারী কিশোর গ্যাং লিডার মেহেদী গ্রেফতার

মোঃ মাসুদ আলম,ব্যুরো চীফ

বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) রাত সাড়ে ১০ টার দিকে উপজেলার লস্করহাটি গ্রামে অভিযান চালিয়ে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার শীর্ষ সন্ত্রাসী, কিশোর গ্যাং লিডার, মাদক ব্যবসায়ী ও স্কুলছাত্রী অপহরণকারী মেহেদী পলাশকে গ্রেফতার ও অপহৃত স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার করেছে র‌্যাব-৫।

সন্ত্রাসী মেহেদী পলাশ উপজেলার লস্করহাটি গ্রামের আনসার আলীর ছেলে।
র‌্যাব এক প্রেস বিজ্ঞপিতে জানায়, কিশোর গ্যাং লিডার মেহেদী পলাশ অপহৃত স্কুল ছাত্রীর পার্শবর্তী হওয়ার সুবাদে তাকে প্রাইভেটে যাতায়াতকালে প্রেম নিবেদন ও কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিলো। ওই ছাত্রী তাতে রাজী না হলে তার পিতা তাকে কথাবার্তা বলতে নিষেধ করে। গত ৪ অক্টোবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে প্রতিনিদের মতই মহিশালবাড়ী পুরাতন জেনারেল হাসপাতালের সামনে থেকে প্রাইভেট পড়া শেষে বাড়ী ফেরার পথে শাহ্ সুলতান রহ: কমিল মাদ্রাসার সামনে পৌছলে, বিকেল ৫ টার দিকে পরিকল্পিত ভাবে মেহেদী পলাশসহ আরো অজ্ঞাত কয়েকজনের সহযোগিতায় স্কুল ছাত্রীকে জোরপূর্বক সিএনজিতে করে তুলে দ্রুত গতিতে পালিয়ে যায়। তারা ওই ছাত্রীকে ইচ্ছার বিরুদ্ধে অজ্ঞাত স্থানে আটকে রেখেছিলো।

এর আগে ওই কিশোর গ্যাং নেতার বিরুদ্ধে এসএসসি পরীক্ষার্থী এক ছাত্রকে তুলে নিয়ে গিয়ে ইটভাঁটায় জ্বলন্ত সিগারেটের ছ্যাঁকা দিয়ে নির্যাতনের অভিযোগ ওঠে। অপহৃত স্কুলছাত্রী আগে অপহরণ ও নির্যাতনের শিকার ঐ ছাত্রের চাচাতো বোন।

ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে গোদাগাড়ী থানায় মামলা দায়ের হয়। এরই প্রেক্ষিতে অন্যান্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর ন্যায় র‌্যাবও ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং গোদাগাড়ীর লস্করহাটি এলাকায় র‌্যাবের গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অপারেশন পরিচালনা করে সন্ত্রাসী মেহেদী পালাশকে গ্রেপ্তার করতে ও অপহৃত ছাত্রীকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়।

এই ঘটনায় গোদাগাড়ী মডেল থানায় মামলা দায়ের হয়েছে বলে গোদাগাড়ী মডেল থানার ওসি কামরুল ইসলাম জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *