ফুলবাড়ীতে টেকনিক্যালয় এন্ড বিএম ইন্সটিটিউড এর প্রতিবাদ ও মানবন্ধনের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

মো.মোরসালিন ইসলাম দিনাজপুর প্রতিনিধি

আজ রবিবার, ২৩ (অক্টোবর) দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে টেকনিক্যালয় এন্ড বিএম ইন্সটিটিউড এর প্রতিবাদ ও মানবন্ধনের বিরুদ্ধে প্রকৃত জমির মালিক মুহাম্মাদ আলী কাদের নেওয়াজ তার নিজ বাড়ীতে গতকাল রবিবার সংবাদ সম্মেলন করেন।

তিনি সংবাদ সম্মেলনে বলেন, আমার পয়ত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত ফুলবাড়ী উপজেলার পূর্ব গৌরীপাড়া মৌজার দাগনং ২৪৯, জেএলনং-৫১, খতিয়ান নং-সিএস-২১৭, এসএ-২৪১, খারিজ খতিয়ান-৯৭৮, জমির পরিমান-৬৭ শতক এর মধ্যে উত্তর পূর্ব অংশে পূর্ব পশ্চিমে লম্বায় ৩৩.৫০ শতক জমি মাত্র। ১১.০১. ১৯৫১ ইং সালে ৬৫ নং কবলা দলিলে হাজী আব্দুল আজিজ তালুকদারের ২৪৯ নং দাগে ৬৭ শতক জমি প্রাপ্ত হই। ০৪. ০৬. ১৯৫৬ ইং সালে ১৩৮৪৯ নং কবলা দলিল মূলে দারাজ উদ্দীন মন্ডল ২৪৯ নং দাগে ৬৭ শতক জমি ভোগ দখল করা অবস্থায় ২৭.০১.১৯৭৯ তারিখে ৪৩৪ নং হেবা নামা দলিল মূলে মোঃ মোজাফ্ফর হোসেন মন্ডল মোহাম্মাদ আলী কাদের নেওয়া এর নিকট হস্তান্তর করেন। পরবর্তীতে ২৪৯ নং দাগের ৬৭ শতক জমির মধ্যে ৩৩.৫০ শতক জমি তার দুই পুত্র যথাক্রমে উত্তর পূর্ব পশ্চিমে আব্দুস সালেক (শাওন) ও তোহা মন্ডল এর নিকট হস্তান্তর করেন।

উক্ত সম্পত্তি জুড়ে অবৈধ্যভাবে ফুলবাড়ী টেক্যানিকেল এন্ড বিজনেস ম্যানেজম্যান্ট ইন্সটিটিউড এর অধ্যক্ষ আবু তৈয়ব সালাহউদ্দিন (তুহিন) মালিকের অজান্তে স্থাপনা নির্মাণ করেন। ২০.০৬.২০২২ ইং তারিখে পৌর সালিশী বোডে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। ঐ সালিশী বোডে প্রথম পক্ষের আবেদনের বিষয়ে সুষ্ঠ নিষ্পত্তির জন্য উভয় পক্ষকে ঐ জমির সীমানা নির্ধারণ করার লক্ষে গত ০১.০৯.২০২২ ইং তারিখে পৌর কর্তৃপক্ষ উভয় পক্ষকে ০৫.০৯.২০২২ ইং তারিখে মাপ জরিপের দিন ধার্য করে উভয় পক্ষকে নোটিশ প্রদান করেন। ০৭.০৯.২০২২ ইং তারিখে পৌর মেয়র, কাউন্সিলর উক্ত জমির সীমানা নির্ধারণ কাজ সম্পন্ন করেন। সংসদ সদস্যের উপস্থিতিতে তাদের প্রাপ্ত দলিল মূলে বাদী পক্ষকে৩৩.৫০ শতাংশজমি জমি দেওয়ার নির্দেশ প্রদান করেন। মিথ্যা তথ্য প্রচার মানববন্ধন করার প্রতিবাদে ঐ কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে জমির মালিক মোহাম্মাদ আলী কাদের নেওয়াজ বিভিন্ন দপ্তরে ন্যায় বিচারের আশায় লিখিত অভিযোগ প্রেরণ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে মোহাম্মাদ আলী কাদের নেওয়াজ বলেন অধ্যক্ষ হাই কোট কে অবমাননা করে স্থাপনা তৈরি করেন। জেলা জর্জ কোর্টে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা এখন পর্যন্ত বলবদ আছে। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, মোহাম্মাদ আলী কাদের নেওয়াজ এর পুত্র আব্দুস সালেক (শাওন) ও তোহা মন্ডল এবং তার পরিবারের সদস্য বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। তারা সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *