আজ খুলনা শীতলা বাড়ী মন্দিরে ৫৯ তম তারকব্রহ্মা মহানামযজ্ঞ উপলক্ষে মতবিনিময় সভা

বিপ্লব সাহা খুলনা ব্যুরো চীফ :

আজ ১১ নভেম্বর শুক্রবার খুলনা মহানগর শীতলা বাড়ি কার্যকরী কমিটির উদ্যোগে সকাল ১১ টায় শীতলা মাতা ঠাকুরানীর নাট মন্দির প্রাঙ্গণে এক মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়।
আলোচনার মুখ্য বিষয়ে ছিল ৫৯ তম তারকব্রহ্ম মহানামযজ্ঞ অনুষ্ঠান ও দূর্গা মন্দির পূর্ণনির্মাণ প্রকল্পের বিষয় আলোচনা।

এতে সভাপতিত্ব করেন শীতলা বাড়ি কার্যকরী কমিটির সভাপতি
শ্রী শ্যামাপ্রসাদ কর্মকার । এবং প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা জেলা পূজা উদযাপন কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক প্রশান্ত কুন্ডু।
প্রধান অতিথিকে ফুলের তোড়া দিয়ে বরণ করে নেন কার্যকরী কমিটির অন্যতম সদস্য অজয় সাহা।

সভাপতি তার বক্তব্যর মাধ্যমে খুলনা জেলার অন্যতম শতবর্ষ পুরাতন ঐতিহ্যবাহী শীতলা মাতা ঠাকুরানীর মন্দিরের সার্বিক বিষয় তুলে ধরে বলেন মন্দির সংস্কারের কাজ এবং আগামী ৮ জানুয়ারি ৫৯ তম তারকব্রহ্ম মহানাম যজ্ঞ অনুষ্ঠান যাতে সুন্দর সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করা যায় সে বিষয়ে কমিটির অন্যান্য সদস্যদের কে জ্ঞাত করে বলেন এই শীতলা মাতা ঠাকুরানীর মন্দিরটি প্রায় শত বছর আগে প্রতিষ্ঠিত হলেও এখানে রয়েছে গোবিন্দ মন্দির বিষহরি মনসা দেবীর মন্দির কালীমন্দির ও অন্যতম বাৎসরিক পূজার জন্য মহামায়া দেবী দুর্গা মায়ের মন্দির ।
আর এই দেবী দুর্গার মন্দিরটি সাদামাটা ভাবে দীর্ঘদিন ধরে ছিল।
তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি দূর্গা মন্দিরটি সৌন্দর্য বর্ধনও পূর্ণনির্মাণ প্রকল্পে কার্যকর কমিটির সকল সদস্য নিষ্ঠার সাথে যথাযথ ভূমিকা রেখে বাস্তবায়ন করে দৃশ্যমান করবে।

পাশাপাশি আগামী ৮ জানুয়ারি প্রতিবছরের ন্যয় এবারও মহা সমরহের সাথে সপ্তাহব্যাপী ৫৯ তম মহানাম যজ্ঞ অনুষ্ঠান পালন করা হবে।
এতে দেশের স্বনামধন্য আটটি কীর্তনীয়া দলের উপস্থিতিতে অখন্ড নাম পরিবেশনে ব্যবস্থা করা হবে।
মহানাম যজ্ঞ অনুষ্ঠানে বহুদুর দূরান্ত থেকে আগত ভক্ত পদ রেনুতে মুখরিত হয়ে উঠবে শীতলা বাড়ি মন্দির প্রাঙ্গণ।
এবং মহানামযজ্ঞ চলাকালীন সময়ে সকল ভক্তদের মাঝে মহাপ্রসাদ বিতরণ করা হবে।
এক্ষেত্রে সভাপতি মন্দিরের সকল কার্যকরী কমিটির সদস্যদের বলেন সকল বিষয়ে আপনারা সজাগ দৃষ্টি রেখে প্রতিটি কর্মকাণ্ডের পদক্ষেপ গ্রহণ করে সুষ্ঠ ও সুন্দর ভাবে অনুষ্ঠান সম্পন্ন করার ব্যবস্থা করবেন।

এছাড়া তিনি মন্দিরের আয় ব্যয় ও সকল অর্থনৈতিক বিষয়েও আলোচনা করেন।

এর আগে আজকে মতবিনিময় সভার প্রধান অতিথি প্রশান্ত কুন্ডু সহ অন্যান্য বিশেষ অতিথিদের কে মঞ্চের আসন অলংকৃত করার জন্য আহ্বান করা হয় ।
একপর্যায়ে প্রধান অতিথি তার বক্তব্যর মাধ্যমে বলেন শীতলা বাড়ি মন্দিরের নবনির্বাচিত কমিটির কার্যক্রম ইতিমধ্য আমার নজর কেড়েছে। এতে করে আমি সন্তোষ প্রকাশ করছি। তাছাড়া শীতলা বাড়ীর মন্দিরের সার্বিক উন্নয়ন প্রকল্পের যতদূর সম্ভব সহযোগিতার জন্য আমি নিজেকে উৎসর্গ করতেও কার্পণ্যতা করবো না।
তিনি আরো বলেন শীতলা বাড়ী মন্দিরে আমার শৈশবের স্মৃতি ওতপ্রোত ভাবে জড়িয়ে আছে।
তাই আমি আপনাদের সকল উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে এগিয়ে যাওয়ার জন্য সকল সময় সহযোগিতার হাত প্রসারিত থাকবে।

আজকের মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন মন্দির কমিটির সভাপতি শ্যামাপ্রসাদ কর্মকার সাধারণ সম্পাদক বিজয় কুমার ঘোষ ও কার্যকরী কমিটির সকল সদস্যবৃন্দ।
আলোচনা শেষে উপস্থিত সকলের মাঝে শীতলা মাতা ঠাকুরানীর মন্দির কমিটির পক্ষ থেকে মধ্যাহ্ন ভোজের আয়োজন করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *