খুলনা বার এসোসিয়েশনের সভাপতিসহ তিনজন আইনজীবীকে কটাক্ষ মন্তব্য করেছে হাইকোর্ট!!

বিপ্লব সাহা খুলনা ব্যুরো চীফ :

খুলনা আইনজীবী সমিতির সভাপতি সহ তিনজন আইনজীবীকে কটাক্ষ মন্তব্য করে ভর্ৎসনা জানিয়েছে দেশের উচ্চতর আদালত হাইকোর্ট।

ঘটনার বিবরনে জানাজায় খুলনা বার এসোসিয়েশনের সভাপতি এডভোকেট মোঃ সাইফুল ইসলাম ও
অন্য দুইজন আইনজীবীর মধ্যে রয়েছেন খুলনা বারের সদস্য শেখ নাজমুল হোসেন এবং শেখ আশরাফ আলী পাপ্পু ।
এই তিনজনের বিরুদ্ধেই অভিযোগ রয়েছে তারা তাদের আসামীর পক্ষ হয়ে বিচারকের সাথে অসভনীয় আচরণের করার দায়ে উচ্চ আদালত হাইকোর্ট বিভিন্ন ভাবে কটাক্ষ মন্তব্য করে তাদের শাসিয়েছেন। এবং তাদের ক্ষমতার অপব্যবহার থেকে বিরত থাকার জন্য হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। এই মর্মে হাইকোর্টের দুই বিচারপতির জেবিএম হাসান ও রাজিক আল জলিল সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চে তাদের ভর্ৎসনা করেন।

হাইকোর্টের নির্দেশনা অনুসারে এই তিন আইনজীবী গতকাল হাজির হন।
পরে তাদের পক্ষে নিঃশর্ত ক্ষমাপ্রার্থনা করেন সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি মোঃ মমতাজ উদ্দিন ফকির সহ একাধিক আইনজীবী।
শুনানির সময় খুলনা আইনজীবী সমিতির সভাপতি কে উদ্দেশ্য করে হাইকোর্ট বলেন আপনি একজন বিচারকের সঙ্গে যে আচরণ করেছেন কোন সভ্য সমাজের মানুষে এ আচরণ করতে পারে না।

কোন সভ্য লোককি বিচারকের সঙ্গে এ ধরনের আচরণ করতে পারে। হাইকোর্ট আরো বলেন বার সভাপতি হয়ে আদালতে দাপট দেখাচ্ছেন।
এবং তাদের পক্ষের আইনজীবীকে উদ্দেশ্য করে বলেন আপনারা কেন এসব মানুষের পক্ষে নিয়ে আদালতে আসেন আপনারা তাদের পক্ষে দাঁড়ালে আমরা বিব্রত হই।

মানুষ কতটা নিচু হলে একজন বিচারকের সঙ্গে এ ধরনের ভাষা ব্যবহার করতে পারে। এমনটি উল্লেখ করে হাইকোর্ট বলেন একজন আইনজীবীর কথা হবে ভদ্র সুলভ বরং আপনারা যেটা করছেন সেটা চর দখলের মতো করে।
হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি কথার প্রেক্ষিতে তখন খুলনা বার সভাপতি সাইফুল ইসলাম বলেন আমার ভুল হয়ে গেছে বলে অনুতপ্ত প্রকাশ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *