দিনাজপুর বোর্ডের ৫ শিহ্মা প্রতিষ্ঠানে পাশ করেনি কেউ

মো. মোরসালিন ইসলাম দিনাজপুর

চলতি বছরের এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় পাসের হার গতবারের চেয়ে কমেছে। তবে বেড়েছে জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা। এ বছর গড় পাসের হার ৮১ দশমিক ১৬ শতাংশ। আগের বছর এ হার ছিল ৯৪ দশমিক ৮০ শতাংশ। অর্থাৎ গত বছরের তুলনায় এবার পাসের হার কমেছে ১৩ দশমিক ৬৪ শতাংশ।

পাসের হার কমলেও বেড়েছে জিপিএ-৫ পাওয়া পরীক্ষার্থীর সংখ্যা। গত বছরের তুলনায় চলতি বছরের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা বেড়েছে ৮ হাজার ৮ জন। এ বছরে দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৫ হাজার ৫৮৬ জন শিক্ষার্থী। আগের বছর এই সংখ্যা ছিল ১৭ হাজার ৫৭৮ জন। বছর দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডে ছেলেদের পাসের হার ৮০ দশমিক ৭৭ শতাংশ আর মেয়েদের ৮১ দশমিক ৫৫ শতাংশ। তবে এবার ৫ বিদ্যালয়ের কেউই পাস করতে পারেনি। দিনাজপুর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের এসএসসি পরীক্ষার এ বছর জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৫ হাজার ৫৮৬ শিক্ষার্থী যা গত সাত বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ।

আসন্ন (২৮ নভেম্বর) দুপুরে দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. কামরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের অধীনে এসএসসি পরীক্ষায় প্রকাশিত ফলাফলে পাঁচটি বিদ্যালয় থেকে কেউ পাস করেনি। এ পাঁচটি বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ১৭ জন। বিদ্যালয়গুলো হলো- গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলার কুঞ্জামহিপুর দ্বিমুখী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার পশ্চিম খাড়িবাড়ী আছিয়া খাতুন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার খামার বারাই বাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়, দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার হাজীপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় ও পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার বলরামহাট মডেল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *